ফালুটের সকাল

সকালে ফালুটের চারদিকে সাদা হয়ে থাকে হাল্কা বরফের প্রলেপ। দেখলে মনে হয় চাদের দেশ থেকে নেয়া নিলআর্মস্ট্রং এর ছবির সাথে এখানকার যথেষ্ট মিল। অথবা ঐরকম ছবি এখান থেকে উঠানো সম্ভব :p ।
ফালুট ভারত নেপাল সীমান্তে অবস্থিত । সান্দাকফু থেকে এর দূরত্ব প্রায় ২১ কি,মি। নভেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এখানে তাপমাত্রা প্রায় শূন্যের কাছাকাছি থাকে । কখনো কম কখনো বেশি । এখান থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা একদম পরিষ্কার দেখা যায় । আশে পাশে ৪/৫ কিলো মিটারের মধ্যে একটা চেকপোস্ট ছাড়া কোন গ্রাম নেই । একদমই নিরিবিলি আর সুনসান এলাকা । থাকবার জন্য একটা সরকারী বাংলো আর একটা ফরেস্টের বাংলো রয়েছে । সব মিলিয়ে ২০/২২ জন টুরিস্টের একোমডেশন রয়েছে এখানে ।
যাবার বেষ্ট সময়: নভেম্বর এবং এপ্রিল ।

রুট:
ঢাকা- শিলিগুড়ি- মানেভাঞ্জান-চিত্রে-লামেধুরা-মেঘমা – তুমলিং – গাইরিবাস-কায়াকাট্টা-কালাপোখারি-সান্দাকফু-ফালুট ।
যাবার উপায়: ট্রেকিং অথবা মানেভাঞ্জান থেকে জিপ রিজার্ভ করে ফালুট ঘুরে আসা যায় ।।
-জিপ সাফারি করলে ৬ জনের টিমের ঢাকা থেকে খরচ পরবে ১০/১১ হাজার টাকা বা এর কম।
-৬ দিনের ট্রেকিং করলে খরচ আসবে ১৪০০০+

Post Copied From:Rahi‎>Travelers of Bangladesh (ToB)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *